Home শিক্ষা শিক্ষিত আর অশিক্ষিত সম্পদ

শিক্ষিত আর অশিক্ষিত সম্পদ

by Jafor Salah
০ comment

শিক্ষা মানব সমাজকে প্রসারিত করে । আবার কিছু শিক্ষা মানব সমাজকে ধ্বংস করে । যে সমাজে শিক্ষিত মানবঘোষ্টির মূল্যায়ন নাই সে সমাজ শিক্ষিত জনঘোষ্টির কল্পনা করতে পারেনা । শিক্ষা এমন একটি সম্পদ যা ইচ্ছা করলেই কেউ অর্জন করতে পারেনা । অনেক ত্যাগ, ভালবাসা, হাসি-খুশি ইত্যাদি পরিত্যাগ করে নিজকে পরিবার, সমাজ, দেশের কল্যানের জন্য কোরবানী করাই শিক্ষিত লোকের কাজ । অন্যকে কষ্ট দিয়ে নিজেকে রাজকীয় ভাবে রাখা শিক্ষিত লোকের ধর্ম নয় । বর্তমানে কিছু শিক্ষিত শ্রেনীর লোক দেখি আঙ্গুলপুলে কলাগাছ হয়ে গেছে । চাককুরীর আগে কিছুই ছিলনা, কিন্তু চাকুরীর পর দুই থেকে তিন মাস যেতে না যেতেই পাহাড় সমান টাকার প্রসাদ তৈরি করে । তাদের ধারণা সবাই তার মতই আছে কেউ গরীব নাই । অথচ সে প্রতিদিন যা খরচ করে সেই পরিমান যদি অর্থ আমার পাশের একজনকে দেওয়া হয় তাহলে সে উপাস থেকে মরতে হয়না । মানুষ হিংস হইত না, মানুষ মানুষের মধ্যে কোন পার্থক্য থাকে না।

শিক্ষিত লোকের চিন্তা ভাবনা থাকা উচিত আমি এই পৃথিবীতে বেশি দিন থাকবো না। আমার অর্থ সম্পদ ছেলে মেয়ে, স্ত্রী, ভাই-বোন কেউ কাজে আসবে না । মারা যাবার পর তড়িগড়ি করে কবরে রেখে আসবে আর কোন খোজ খবর নিবে না । যদি আমি আমার এই সম্পত্তি পরিবারের পাশাপাশি সমাজের, দেশের একটা মঙ্গল করতে পারি তাহলে সমাজের প্রতিটি মানুষ আমার জন্য কাদবে সর্বাস্থায় সকলে আমাকে স্বরন করবে । দুর্নীতি, অন্যের উপর জুলুম, নিয্যাতন করে কেউ শান্তি পায়নি । মরার পর সবাই বলবে নিকৃষ্ট একটা জালিম সমাজ থেকে কমে গেছে ।

শিক্ষিত লোকের অন্তরে যদি অন্যের প্রতি ভালবাসা না থাকে তাহলে তাকে কেউ শিক্ষিত বলে না। সাধারণত আমরা আমাদের দেশের দিকে লক্ষ্য করলে বুঝতে পারি যে শিক্ষার জন্য অনেকেই সাহায্য চায় কিন্তু কেউ তার সহযোগিতায় আসবে না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো নিয়ে নিচ্ছে হাজার থেকে লক্ষ টাকা । এবং প্রভেইট কোচিং ইত্যাদি থেকেও নিচ্ছে হাজার টাকা । আর এই টাকার কারণে পাশের বাড়ির দরিদ্র ছেলে-মেয়েটি ভাল শিক্ষিত হতে পারেনি খুব মেধাবী হয়েও। কিন্তু পাশের আরো একটি সন্তান আছে যার মেধা ভাল নাই শর্তেও সে নাম করা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছে । কিন্তু মেধাবী সেই ছাত্রটি হয়তো চায়ের দোকান না হয় রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছে ।

You may also like