Home ভ্রমন গাইড ইন্ডিয়ান ভিসা আবেদনের নিয়ম

ইন্ডিয়ান ভিসা আবেদনের নিয়ম

by Jafor Salah
০ comment

ইন্ডিয়ান ভিসা আবেদনের প্রক্রিয়া এখন পুরোপুরি অনলাইনে । ভিসা আবেদনের লিং এখানে ক্লিক করুন। আবেদনের প্রক্রিয়া খুব সহজ দালাল বা অন্য কারো সাহায্য ছাড়াই আপনি নিজেই আবেদন সম্পর্ণ করতে পারবেন। উক্ত ওয়েব সাইটে প্রবেশ করার পর উপরে দেখা যাবে অন লাইন এপ্লিকেশন এখানে ক্লিক করার পর একটা ফর্ম আসবে তা সঠিক ভাবে পূরণ করতে হবে। এরপর সেভ এন্ড কন্টিনিউ এরপর পরবর্তী পেইজের ফর্মটা সঠিক ভাবে পূরণ করুন এবং সেভ এবং কন্টিনিউ তে ক্লিক করুন। এরপর শেষ ফর্মটা পূরণ করুন এবং সব কিছু ঠিক থাকলে সাবমিট করুন।

এরপর অনলাইনে বিকাসে অথবা অনলাইন মোবাইল ব্যাংকি এ নিদিষ্ট পরিমান টাকা পরিশোধ করুন। এবং সাবমিট করা ফাইল এবং টাকা জমা দেওয়ার ফর্ম টা প্রিন্ট করুন। এ প্রিন্ট কপিটি আপনাকে নিজে গিয়ে ভিসা অফিসে জমা দিতে হবে। সাধারণত অনলাইনে সাবমিশনের পর থেকে ৫ দিন পর্যন্ত সময় থাকে যদি এ ৫ দিনের মধ্য জমা দিতে না পারেন তাহলে আপনার ফর্ম এবং টা বাতিল বলে গণ্য হবে। সাবধান আবেদন ফর্ম পূরণের ক্ষেত্রে দেখবেন কোন তথ্য যেনো ভুল না হয় তাহলে সাথে সাথে আবেদন বাতিল হবে।

কোথায় জমা দিবেন:
ইন্ডিয়ান এম্বাসি ঢাকা যমুনা ফিউচার পার্কে আবেদন পত্র, পাসপোর্ট জমা দিতে হবে।

আবেদন পত্র জমা:
নিম্নের কিছু বিষয় লক্ষ্য করুন:
১. অনলাইনে আবেদন করা ফর্মটি সাথে এক কপি ছবি প্রথম পাতা উপরে ছবি ঘরে আঠা দিয়ে লাগিয়ে দিবেন ।
২. দ্বিতীয় পাতার নিছে পাসপোর্টে যে স্বাক্ষর ব্যবহার করেছেন এটা দিয়ে স্বাক্ষর করুন।
৩. নাগরিকত্ব সনদ/ন্যাশনাল আইডি কার্ড/স্থানীয় ঠিকানার সমর্থনে ফোন/ওয়াসা বা বিদ্যুৎ বিল, ডলার এনডোর্সমেন্ট সার্টিফিকেট, পেশর সমর্থনে অফিস/শিক্ষা প্রতিষ্ঠান/ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সার্টিফিকেট জমা দিতে হবে।
৪.সব পেপারসের একটা ফটোকপি এবং একটা অরিজিনাল কপি সঙ্গে করে নিবেন।
৫. ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ ফোন/ওয়াসা বা বিদ্যুৎ বিল এর ফটোকপি জমা দিবেন। অথবা যদি রাখে পরে পাসপোর্টে দেওয়ার সময় দিয়ে দিবে।
৬. চাকুরিজীবি হলে এনওসি লাগবে ।
৭. আপনার পরিবারের অন্য যে কোন সদস্যের ফর্ম আপনি জমা দিতে পারবেন এবং উঠাতে পারবেন। অন্য কেউ হলে অথরাইজেশন লেটার লাগবে।
৮. ভিসা সেন্টারে ফটোকপি মেশিন আছে।
৯. ভিসা অফিসে ব্যাগ নিয়ে ভেতরে প্রবেশ করা যায় না তাই সাথে কোন ব্যাগ নিবেন না। যদি নিয়ে যান তাহলে বাহিরে রাখতে হবে সে ক্ষেত্রে ২০টাকা দিতে হবে।
১০. পাসপোর্ট এবং ভিসা ফর্ম ব্যতীত ভেতরে প্রবেশ করতে পারবেন না।
১১. টুরিস্ট ভিসার জন্যে সর্ব নিম্নে ১৫০ ডলার এন্ডোর্সমেন্টের সার্টফিকেট দেখাতে হবে। তাই ডলার আপনি যেখান থেকেই সংগ্রহ করুন না কেন সার্টিফিকেট ব্যাংক বা সরকার অনমোদিত মনি চেন্জার থেকে সংগ্রহ করুন।
১২. ব্যাংক এস্টেটমেন্টে আপনার একাউন্টে সর্বনিম্নে ২০ হাজার টাকা দেখাতে হবে।

ইত্যাদি সব ঠিক থাকলে টোকেন নাম্বার অনুযায়ী আপনার সিরিয়াল আসবে এবং আপনার কাগজপত্র এবং পাসপোর্ট জমা নিবে। নেওয়ার পর পাসপোর্ট ফেরত নেওয়ার একটা তারিখ আপনাকে দিবে ঐটা নিদিষ্ট দিন পাসপোর্ট ফেরত নেওয়ার সময় রিসিটটি দেখিয়ে আপনার পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে হবে।

You may also like